1. admin@ajkallondon.com : Ajkal London : Ajkal London
  2. ajkallondon@gmail.com : Dev : Dev
এফবিসিসিআই প্রতিনিধিদলের সম্মানে ইউকেবিসিসিআই’র নৈশভোজ - Ajkal London
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:৪২ অপরাহ্ন

এফবিসিসিআই প্রতিনিধিদলের সম্মানে ইউকেবিসিসিআই’র নৈশভোজ

রিপোর্টার নাম
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১
  • ১২২ বার ভিউ

কমিউনিটি প্রতিবেদক: লন্ডন সফররত ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) প্রতিনিধিদলের সম্মানে ইউকে বাংলাদেশ ক্যাটালিস্ট অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির (ইউকেবিসিসিআই) উদ্যোগে এক নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের রিজেন্ট লেইক ব্যানকুয়েটিং হলে অনুষ্ঠিত নৈশভোজে দুই সংগঠনের নেতৃবৃন্দ একটি ম্যামোরেণ্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং (এম.ও.ইউ) স্বাক্ষর করেন । এতে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন বানিজ্যিক বিষয়ে দুই সংগঠন একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

ইউকেবিসিসিআই’র ডাইরেক্টর ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া ও রহিমা মিয়ার যৌথ উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রেসিডেন্ট নাজমুল ইসলাম নুরু। বক্তব্য রাখেন ইউকেবিসিসিআইর চেয়ারম্যান বৃটেনের শীর্ষ বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ইকবাল আহমদ ওবিই, এফবিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট শিল্পপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, এফবিসিসিআইর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ঢাকা-১০ আসনের এমপি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ইউকেবিসিসিআই লন্ডন রিজিয়নের প্রেসিডেন্ট গিনেস রেকর্ড হোল্ডার অলি খান এমবিই, বাংলাদেশ হাইকমিশনের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর জাকারিয়া হক, সাপ্তাহিক জনমত সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা ও এনটিভির সিইও সাবরিনা হোসাইন। সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন ইউকেবিসিসিআই ভাইস প্রেসিডেন্ট জামাল উদ্দিন মকদ্দুস। অনুষ্ঠানের শুরুতে এফবিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট শিল্পপতি মোঃ জসিম উদ্দিনকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ইউকেবিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট নাজমুল ইসলাম নুরু ও চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ ওবিই।

অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআইর সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, বিনিয়োগ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অপার সম্ভাবনার দেশ। এনআরবিদের বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশে বর্তমানে খুবই. সুন্দর পরিবেশ বিরাজ করছে। আমি যুক্তরাজ্য প্রবাসী ব্যবসায়ীদেরকে দেশে বিনিয়োগের আহবান জানাই । যদি এই মুহুর্তে বিনিয়োগে এগিয়ে না আসেন, তাহলে আপনারা বড় সুযোগ হাতছাড়া করবেন। তিনি বলেন আপনারা আসুন, বিনিয়োগ ক্ষেত্রে কোনো প্রতিবদ্ধকতার সম্মুখিন হলে আমাদেরকে পাশে পাবেন। তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশী মালিকানাধীন ১২ হাজারের বেশি রেস্টুরেন্ট আছে। রেস্টুরেন্টের পন্যসামগ্রী আপনারা বাংলাদেশ থেকে আমদানী করতে পারেন। প্রয়োজনে আপনারা বাংলাদেশে কৃষিক্ষেত্রে বিনিয়োগ করতে পারেন এবং আপনাদের রেস্টুরেন্টের প্রয়োজনীয় পথ্যসামগ্রী উৎপাদন করে এদেশে আমদানী করে নিয়ে আসতে পারেন।
ইকবাল আহমদ ওবিই বলেন, বাংলাদেশ থেকে শাকশবজি আমদানীর ক্ষেত্রে নানা প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করতে হয়। ইউরোপিয় ইউনিয়নের স্ট্যান্ডার্ড মেনে পণ্য আমদানী করা খুবই কঠিন। ঢাকা এয়ারপোর্টে কোল্ডস্টোরেজ নেই। তাই ইচ্ছা থাকলেও চাহিদা মতো কাঁচামাল আমদানী করা যায় না। তিনি এই সমস্যা সুরাহা করতে এফবিসিসিআই নেতৃবৃন্দকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।
এফবিসিসিআইর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এমপি বলেন, বাংলাদেশ সরকার ব্যবসায়ীদের প্রতি খুবই উদার। নিরাপদে নিশ্চিন্তে ব্যবসা করার জন্য সরকার সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে। প্রবাসীরা দেশে বিনিয়োগ করলে যে লাভবান হবেন, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তিনি বলেন, ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কার্গো ভিলেজ নির্মিত হচ্ছে। আগামী বছর পুরোদমে চালু হয়ে যাবে। তাহলে শাকশবজি আমদানীর ক্ষেত্রে আর কোনো সমস্যা থাকবে না।
নাজমুল ইসলাম নুরু বলেন, এফবিসিসিআইর সাথে আমাদের সংগঠনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অনেক আগের। আমরা কয়েক বছর আগে মেমোরেণ্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং স্বাক্ষর করে বিভিন্ন ইস্যূতে ঐক্যমত পোষন করি। আজ আমরা পুনরায় স্বাক্ষর করার মধ্য দিয়ে আগের এম.ও.ইউ রিভিউ করে নিলাম। আশাকরি এই স্বাক্ষর কর্মসূচির মধ্যে দুই সংগঠনের সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে এবং আমরা ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারিদের স্বার্থ রক্ষায় আরো বেশি ভুমিকা রাখতে পারবো। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Google News

নিউজ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর