1. admin@ajkallondon.com : Ajkal London : Ajkal London
  2. ajkallondon@gmail.com : Dev : Dev
সেকেন্ডারি স্কুলে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ - Ajkal London
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০১:৩৬ অপরাহ্ন

সেকেন্ডারি স্কুলে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ

রিপোর্টার নাম
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ৩৭ বার ভিউ

সিটি  প্রতিবেদক: স্কুলে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ব্রিটিশ সরকার। নতুন সরকারি নির্দেশনায় ইংল্যান্ড জুড়ে স্কুলে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সরকারি নির্দেশিকায় বিষয়টিতে নজরদারির জন্য প্রধান শিক্ষকের উপরে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন নীতির লক্ষ্য দেশের সমস্ত স্কুলে একটি সামঞ্জস্যপূর্ণ পদ্ধতি নিশ্চিত করা। স্কুলগুলির কাছে বিভিন্ন পদ্ধতি প্রয়োগ করার বিকল্প থাকবে, যেমন প্রাঙ্গণ থেকে ফোন নিষিদ্ধ করা, আসার পরে ফোন সংগ্রহ করা,বা স্কুল চলাকালীন নিরাপদে সংরক্ষণ করা।

মোবাইলের উপরে বিধিনিষেধের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, স্কুলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে ফোন। ব্যাহত হয় পঠনপাঠন।ব্রিটিশ শিক্ষামন্ত্রী গিলিয়ান কিগান বলেছেন, ‘স্কুল হল বাচ্চাদের শেখার জায়গা এবং মোবাইল ফোন হল ক্লাসরুমে একটি অবাঞ্ছিত বিভ্রান্তি। আমরা শিক্ষকদের আচরণের উন্নতি এবং পাঠদানে মনোযোগ দেওয়ার ওপর জোর দিচ্ছি।’

ব্রিটিশ মিডিয়া ওয়াচডগ অফিস অফ কমিউনিকেশনস (অফকম) অনুসারে, ৯৭% শিশু বারো বছর বয়সের মধ্যে একটি মোবাইল ফোনের গ্রাহক হয়ে যায়।ডিপার্টমেন্ট ফর এডুকেশন (ডিএফই) জানিয়েছে, স্কুলে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা অনলাইনে গুন্ডামি, বিভ্রান্তি এবং ব্যাঘাত ঘটাতে পারে, যার ফলে শেখার সময় কমে যায়।

ব্রিটিশ প্রযুক্তিমন্ত্রী মিশেল ডোনেলান ডিজিটাল যুগে শিশুদের সুস্থতা এবং শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছেন। মোবাইল ফোন ব্যবহার নিয়ে অভিভাবকদের উদ্বেগের প্রতিক্রিয়ায় সরকারের এই সিদ্ধান্ত।

দাতব্য সংস্থা প্যারেন্টকাইন্ড দ্বারা পরিচালিত একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে যে ৪৪% পিতা মাতা তাদের সন্তানদের ইলেকট্রনিক ডিভাইসে অত্যধিক সময় ব্যয় করার বিষয়ে উদ্বিগ্ন। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের মধ্যে এই উদ্বেগ ৫০% বেশি। প্যারেন্টকাইন্ডের চিফ এক্সিকিউটিভ জেসন এলসম, সরকারের নির্দেশনার প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেছেন এবং ইলেকট্রনিক ডিভাইসের আসক্তির প্রকৃতি তুলে ধরেছেন।
এলসম বলেন, ‘শিশুরা ক্ষতিকারক ইলেকট্রনিক ড্রাগে আসক্ত হয়ে পড়েছে, এমনকি তাদের স্কুলেও রেহাই নেই। শিক্ষা বিভাগ মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ করার জন্য স্কুলগুলি দ্বারা নিযুক্ত সফল কৌশলগুলির উল্লেখ করেছে।’

নির্দেশিকায় উল্লিখিত একটি উদাহরণ হল চার্জিং পয়েন্টসহ লকার প্রবর্তন, যাতে ফোনগুলি ক্লাসরুমে আনা না হয় তা নিশ্চিত করা। যে স্কুলগুলি এই পরিবর্তনটি বাস্তবায়ন করেছে তারা ছাত্রদের আচরণ এবং সামগ্রিক স্কুল সংস্কৃতিতে ইতিবাচক প্রভাবের কথা জানিয়েছে। এরইমধ্যে ফ্রান্স, ইতালি এবং পর্তুগাল স্কুলগুলিতে মোবাইল ফোন ব্যবহার সীমিত করেছে।

Google News

নিউজ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর