1. admin@ajkallondon.com : Ajkal London : Ajkal London
  2. ajkallondon@gmail.com : Dev : Dev
চল্লিশের পর বয়স নিয়ন্ত্রণ করবেন যে ভাবে - Ajkal London
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৬ অপরাহ্ন

চল্লিশের পর বয়স নিয়ন্ত্রণ করবেন যে ভাবে

রিপোর্টার নাম
  • প্রকাশিত : সোমবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪৯ বার ভিউ

ইসরাত জাহান নায়লা : মনের দিক থেকে আপনি যতই উচ্ছ্বল ও তরুণ থাকেন না কেন, শরীরের বয়স তো বাড়বেই। প্রকৃতির এই নিয়ম কারও পক্ষেই থামিয়ে রাখা সম্ভব নয়। কিন্তু মনের পাশাপাশি চেহারায়ও তারুণ্য ধরে রাখতে চান সবাই। অনেক সময় দেখবেন, একই বয়সী দু’জন ব্যক্তির মধ্যে একজন তুলনামূলক তরুণ এবং অপরজনকে অনেকটাই বয়স্ক লাগে। আসল কথা হলো, খাদ্যাভ্যাসসহ জীবনযাপনের কিছু দিক বদলে নিলে সহজেই তারুণ্য ধরে রাখা সম্ভব। যাকে দেখতে তুলনামূলক তরুণ মনে হচ্ছে, সে সেসব নিয়ম মেনেই জীবনযাপন করছে।
সময়ের কাঁটা এগিয়ে চলে। সেই তালে তাল মেলাতে গিয়ে চল্লিশে যখন পা রাখবেন, তখন নিজের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখাটাই বেশি জরুরি। এসময় নিজেকে সুস্থ রেখে জীবনকে উপভোগ করতে হবে। চল্লিশের পরে সুস্থ থাকতে ও তারুণ্য ধরে রাখতে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে খাবারের দিকে। এসময় অতিরিক্ত কার্বস জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। জেনে নিন কোন খাবারগুলো খাবেন-

ওটস থাকুক পাতে : পুষ্টিবিদরা বলছেন, ৪০ পার হওয়ার পর সকালের নাস্তায় ওটস হতে পারে উপকারী। কারণ এতে আছে পর্যাপ্ত ফাইবার। এটি শরীরে শক্তি জোগাতে সহায়তা করে। প্রতিদিন মাত্র ৩০ গ্রাম ওটস আপনাকে সারাদিন প্রাণবন্ত রাখতে পারে। এতে থাকা ফাইবার হজমশক্তি বাড়ায়। বয়স বাড়লেও তার ছাপ পড়তে দেয় না চেহারায়।

নিয়মিত দুধ পান করুন : ৪০ পার হওয়ার পর শরীরের প্রয়োজন হয় আরও বেশি পুষ্টি উপাদানের। তাই এসময় নিয়মিত দুধ পান করতে হবে। কারণ এতে আছে উচ্চ প্রোটিন ও পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম। ফলে দুধ পান করলে তা পেশির শক্তি বাড়ায় এবং হাড়ের ক্ষয় থেকে মুক্তি দেয়। দুধে থাকা ইলেক্ট্রলাইটস শরীর ভেতর থেকে আর্দ্র রাখে। তারুণ্য ধরে রাখতে প্রতিদিন সকালে একগ্লাস দুধ পান করুন।

কেন কলা খাবেন : উপকারী আরেকটি খাবার হলো কলা। এটি দ্রুত শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। কলায় আছে প্রচুর ভিটামিন, পটাশিয়াম ও আয়রন। স্বাস্থ্যকর ডায়েটের অংশ হলো এই উপকারী খনিজ সমৃদ্ধ খাবার। সঙ্গে কলা রাখলে টিফিনে বা অফিসে কাজের বিরতিতেও খেতে পারেন। পুষ্টিকর নাস্তা হিসেবে কলা রাখতে পারেন খাবারের তালিকায়।

মিষ্টি আলুর মিষ্টি গুণ : মিষ্টি আলুর উপকারিতা সম্পর্কে অনেকেরই জানা নেই। এতে আছে প্রচুর কার্বস। যা সঠিক উপায়ে প্রতিদিন শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। মিষ্টি আলুতে আছে পর্যাপ্ত ভিটামিন এ। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পাশাপাশি বাড়ায় মুখের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোর কার্যকারিতা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই বাড়ে সৌন্দর্য। চোখ ভালো রাখতেও কাজ করে মিষ্টি আলু।

ডার্ক চকোলেটও উপকারী : ডার্ক চকোলেট নানাভাবে উপকার করে থাকে। যেমন এতে আছে অনেকগুলো উপকারী খনিজ। মন ভালো রাখতে ও শক্তি বৃদ্ধির জন্য ডার্ক চকোলেট খেতে পারেন। এতে থাকা ক্যাফেইন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আপনাকে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে সাহায্য করবে।

Google News

নিউজ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর