1. admin@ajkallondon.com : Ajkal London : Ajkal London
  2. ajkallondon@gmail.com : Dev : Dev
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির দোয়া ও আলোচনা সভা - Ajkal London
শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ১২:৪২ অপরাহ্ন

জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর বিএনপির দোয়া ও আলোচনা সভা

রিপোর্টার নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, ৩১ মে, ২০২৩
  • ৭১ বার ভিউ

সজল কুমার দাস,সিলেট থেকে : বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেছেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান নিজের জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। মুক্তিযুদ্ধে যেভাবে দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তেমনি দেশের ক্রান্তিলগ্নে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকা গণতন্ত্রকে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও শহীদ জিয়া একই সূত্রে গাঁথা। জিয়াউর রহমানের সুযোগ্য নেতত্ব এবং সুশাসনকে ইতিহাসের সোনালী অধ্যায় হিসেবে জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে। কতিপয় বিপথগামী সেনা কর্মকর্তা বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা জিয়াকে শহীদ করে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। কারণ শহীদ জিয়ার সুযোগ্য সহধর্মিনী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন। ফ্যাসিস্ট সরকার জিয়া পরিবারের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারাগারে আটকে রেখেছে। তারেক রহমানের উপর একের পর এক মিথ্যা মামলা, গ্রেফতারী পরোয়ানা এবং ফরমায়েসী সাজা প্রদান করছে। জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে জিয়াউর রহমানের জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে জাতিকে রক্ষার দৃঢ় শপথ নিতে হবে।

তিনি গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪২তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে সিলেট মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ হোসেন চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, সম্মিলিত পেশাজীবি পরিষদ সিলেটের আহ্বায়ক ডা. শামীমুর মরহমান, শহীদ জিয়া স্মৃতি পরিষদ কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম ইমন।

নগরীর দরগা গেইটস্থ কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ কেমুসাসের শহীদ সুলেমান হলে অনুষ্ঠিত দোয়া ও আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব মিফতাহ সিদ্দিকী, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মামুনুর রশীদ মামুন (চাকসু), মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক হুমায়ুন কবির শাহীন, রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, জিয়াউল গণি আরেফিন জিল্লুর, সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিন, নজিবুর রহমান নজিব, সৈয়দ মঈনুদ্দিন সোহেল, মহানগর আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য মাহবুব কাদির শাহী, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ সাফেক মাহবুব, আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য মুকুল আহমদ মুর্শেদ, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, আখতার রশিদ চৌধুরী, আফজাল উদ্দিন, মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক দিনার খান হাসু, জেলা যুবদলের সভাপতি এডভোকেট মোমিনুল ইসলাম মোমিন, মহানগর বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ রেজাউল করিম আলো, সাবেক মানবাধিকার সম্পাদক মুফতি নেহাল উদ্দিন, মহানগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা নিগার সুলতানা ডেইজি, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক মাহবুবুল হক চৌধুরী, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মির্জা সম্রাট হোসেন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আফসর খান, মহানগর জাসাসের আহ্বায়ক তাজ উদ্দিন মাসুম, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সুদীপ জ্যোতি এষ, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিনার, মহানগর সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি আহসান, মহানগর জাসাসের সদস্য সচিব রাসেল রানা, মহানগর শ্রমিক দলের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী জীবন, বিএনপি নেতা মফিজুর রহমান জুবেদ, মানিক মিয়া, লুৎফুর রহমান, মহানগর বিভিন্ন ওয়ার্ড সভাপতিদের মধ্য থেকে লুৎফুর রহমান চৌধুরী, নাজিম উদ্দিন, আব্দুল হাকিম, শোয়াইবুর রহমান সুয়েব, লুৎফুর রহমান মোহন, মঞ্জুর আহমদ মঞ্জু, খায়রুল ইসলাম খায়ের, রহিম মল্লিক, মো: বাচ্চু, মিজান আহমদ, বিভিন্ন ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে থেকে মামুন ইবনে রাজ্জাক রাসেল, এস.এম সায়েম, মিনহাজ পাঠান, রুবেল বক্স, ছাব্বির আহমদ, দেওয়ান আরাফাত চৌধুরী জাকির, আবু সাঈদ মো” তায়েফ, বেলাল আহমদ, আব্দুস সবুর রাসেল, রুম্মান আহমদ, আব্দুল আজিজ লাকি, লোকমানুজ্জামান, আব্দুল মালিক সেকু, রফিকুল ইসলাম রফিক, রহিম আলী রাসু, সুলেমান হোসেন সুমন, ওয়ার্ড সাংগঠনিক সম্পাদকদের মধ্যে থেকে রাসেল আহমদ খান, আব্দুল মুনতাসির চৌধুরী সাব্বিহ, মঈন খান ও নুরুল ইসলাম লিমন প্রমূখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মহানগর বিএনপির সাবেক স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা: আশরাফ আলী।

অনুষ্ঠানে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এছাড়া অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য-দীর্ঘায়ু, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সুস্বাস্থ-দীর্ঘায়ু, মরহুম আরাফাত রহমান কোকো’র মাগফেরাত কামনা ও দেশ-জাতির মঙ্গল কামনায় মোনাজাত করা হয়।

সভায় বক্তারা আরো বলেন, শহীদ জিয়ার হাতেগড়া দল বিএনপি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে গণতন্ত্র ও জনকল্যাণের রাজনীতি করে আসছে। সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে শহীদ জিয়ার ১৯ দফা একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়তে জাতীয়তাবাদী শক্তির বিকল্প নেই। স্বৈরাচারী আওয়ামীলীগ সরকার গণতন্ত্র হত্যা করে দেশে একদলীয় বাকশাল কায়েম করেছে। দুর্নীতি ও লুটপাটের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিকে পঙ্গু করে দিয়েছে। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে জনজীবন অতীষ্ট হলেও সেদিকে সরকারের কোন দৃষ্টি নেই। তারা দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে পুনরায় গদি দখলের পায়তারা করছে। শহীদ জিয়ার সৈনিকেরা বেঁচে থাকতে ফ্যাসিস্ট সরকারের এই ষড়যন্ত্র আর সফল হতে দেয়া হবে না।

Google News

নিউজ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর